২৫ মে ২০২২, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন

সিরাজুল ইসলাম ঘুষের টাকাসহ গ্রেফতার প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক

মোস্তাফিজার রহমান বাবল, রংপুর :

 দুদকের ফাঁদে দূঃসাহসিক ভাবে পা দিয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের রংপুর বিভাগীয় উপ পরিচালক সিরাজুল ইসলাম সোমবার রাতে ঘুষের টাকাসহ নিজ কার্যালয়ে হাতেনাতে গ্রেফতার হয়েছেন। এ ব্যাপারে দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যলয়ের সহকারী পরিচালক মাসুদুর রহমান বাদী হয়ে ওই রাতেই রংপুর কোতয়ালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। সিরাজুল ইসলামের বাড়ী বগুড়া শহরের মালতি নগরে বলে জানা গেছে। মঙ্গলবার ডিডি সিরাজুল ইসলামকে রংপুরের চীফ জুডিশিয়াল মেজিষ্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে মাননীয় আদালত তাকে জেল হাজতে পাঠিয়ে দেন।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা গেছে-দূনীর্তি দমন কমিশন দুদক রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নুরে আলমের স্ত্রী ঠাকুরগাঁও জেলার হরিপুর উপজেলার বালিহারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক শারমিন আক্তার গত কয়েক মাস ধরে রংপুরে বদলী হয়ে আসার জন্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের রংপুর বিভাগীয় উপ পরিচালক সিরাজুল ইসলামের নিকট ধর্না দিচ্ছিলেন। এ ব্যাপারে তাঁর স্বামীও নিজের পরিচয় দিয়ে কয়েক দফা যোগাযোগ করেন। এক পর্যায়ে ডিডি সিরাজুল ইসলাম এক লাখ টাকার বিনিময়ে শারমিন আক্তারকে রংপুরে বদলী করে আনার ব্যাপারে সম্মতি প্রকাশ করেন। তবে দুদক কর্মকর্তার স্ত্রী হিসেবে তাঁকে ২০ হাজার টাকা ডিসকাউন্ট দিয়ে প্রথমে ২০ হাজার টাকা অগ্রীম গ্রহন করেন। ঘুষের অবশিষ্ট টাকা সোমবার দেয়ার কথা ঠিক হলে শারমিন আক্তারের স্বামী দুদকের সহকারী পরিচালক নুরে আলম কে বিষয়টি অবহিত করেন। এরপর দুদকের ঢাকা বিভাগীয় কার্যলয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ার এর নেতৃত্বে একটি শক্তিশালী বিশেষ দল প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের রংপুর বিভাগীয় উপ-পরিচালক কার্যালয়ের সামনে সোমবার বিকেল থেকে এ্যাম্বুস করে থাকেন। সন্ধায় ডিডি সিরাজুল ইসলাম শারমিন আক্তারের নিকট থেকে প্রতিশ্র“তির অবশিষ্ট টাকা নেয়ার সময় দুদকের ওই বিশেষ দলটি ঘুষের টাকাসহ প্রাথমিক ও গণশিক্ষা অধিদপ্তরের রংপুর বিভাগীয় উপ পরিচালক সিরাজুল ইসলামকে নিজ কার্যালয়ে হাতেনাতে গ্রেফতার করে। এ সময় দুদকের দলটি ওই কার্যালয়ের বদলী সংক্রান্ত বিভিন্ন রেজিষ্টার সহ বেশ কিছু গুরুত্বর্পূন ডকুমেন্ট সিজার লিষ্ট করে নিয়ে গেছেন। ডিডি সিরাজুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রতিটি বদলীর জন্য এক লাখ করে টাকা নেয়া সহ টাকা ছাড়া কোন কাজ না করার বিস্তর অভিযোগ রয়েছে বলে জানা গেছে। তাঁর এই ঘুষ বাণিজ্যের ব্যাপারে ঐ কার্যালয়ের একজন অফিস সহকারী মূখ্য সমন্বয়কারীর ভূমিকা পালন করে থাকেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

More News Of This Category

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পুরো সপ্তাহের চাকরির খবর চাকরি ডাক

ঘোষনাঃ
Translate »