ব্রেকিং নিউজ
মোরেলগঞ্জে জমিতে ১৪৪ ধারায় বার বার মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

মোরেলগঞ্জে জমিতে ১৪৪ ধারায় বার বার মামলা দিয়ে হয়রানীর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জের পল্লীতে অবসর প্রাপ্ত ইউপি সচিবের ভোগ দখলীয় জমিতে ১৪৪ ধারায় মামলা দিয়ে বার বার হয়রানীর অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন।ভূক্তভোগী উপজেলার পুটিখালী ইউনিয়নের সোনাখালী গ্রামের ফনিভূষণ শীলের পুত্র অবসর প্রাপ্ত ইউপি সচিব নিতাই চন্দ্র শীল। শনিবার সকালে মোরেলগঞ্জ প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ভূক্তভোগী নিতাই চন্দ্র শীল লিখিত বক্তব্যে বলেন আমার চাচাতো দাদা মুকুন্দু বিহারী শীলের কাজ থেকে ১৯৭৪ সালে ১ ফেব্রæয়ারী ৫১২ নং দলিলে ও একই বছরের ২১ জানুয়ারী ২৪২ নং কবলা দলিলে সাড়ে ৪১ শতক জমি প্রতিবেশী আঃ লতিফ খান খরিদ করে। ওই জমি ২০০৪ সাল পর্যন্ত আঃ লতিফ ২৮ বছর ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় ১২ জুলাই ২০০৪ সালে ৪৮৯৭ নং দলিলে আমার নিকট ৪০ শতক জমি কবলায় বিক্রয় করেন। ২০০৪ সাল থেকে এ জমি আমার ভোগ দখলে থাকা অবস্থায় প্রতিপক্ষ আষীশ, গোপাল ও যুগলেরা অযথা হয়রানী করার উদ্দেশ্যে ২০১৯ সালে আমার জমিসহ ১০.৯৪ একর জমির দাবীতে বিজ্ঞ আদালতে দেঃ ৮৮/১৯ নং বাটোয়ারা মামলা দয়ের করে যা আদালতে বিচারাধীন। অপর দিকে প্রতিপক্ষ ওই ১০.৯৪ একরের মধ্যে শুধুমাত্র আমার ভোগ দখলীয় ৩৯ শতক জমি চাষাবাদে বাধাসহ না না প্রকার হয়রানী করিতে থাকে। সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারায় প্রতিপক্ষ আষীশদের বিরুদ্ধে ২০১৯ সালে ২১ নবেম্বর নিজেই ১৮০ নং মামলা দায়ের করে পক্ষে রায় পায়। পরবর্তীতে প্রতিপক্ষরা বাদী হয়ে নিতাই শীলের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারায় একই বছরে ৩টি মামলা দায়ের করে। যাহার ২৪ জানুয়ারী ১৩৮, ২৭ এপ্রিল ৬৬৩ ও ২০ জুলাই ১১৭৫ নং মামলার মধ্যে ২টিতে নিতাই শীল নিজের পক্ষে রায় পেয়েছেন। অন্যটি বিচারাধীন অবস্থায় থাকলেও ভূমি অফিসার পক্ষে তার প্রতিবেদন দিয়েছেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে প্রতিপক্ষ বিভিন্ন হুমকী ও হয়রানী অব্যহত রেখেছে বলে সংবাদ সম্মেলনে দাবী করে নিতাই চন্দ্র শীল। এ সময় তিনি মামলা, হামলা থেকে রেহাই পেতে প্রশাসানের হস্থক্ষেপ কামনা করেন।

---------

العربيةবাংলাEnglishहिन्दी